সংসদে উঠলো বালাগঞ্জ- রাজনগরবাসীর কুশিয়ারায় ব্রিজের কথা

প্রকাশিত: ৯:৩৯ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ৩১, ২০২০

সংসদে উঠলো বালাগঞ্জ- রাজনগরবাসীর কুশিয়ারায় ব্রিজের কথা

স্টাফ রিপোর্টার/এফ জুম্মান  ::

 

সিলেট জেলার বালাগঞ্জ উপজেলা  এবং মৌলভীবাজার জেলার মিলনস্থল কুশিয়ারা নদী। এক সময় অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের মুল কেন্দ্র বিন্দু ছিল বালাগঞ্জ উপজেলা।বিশাল আয়তন ১৪ টি ইউনিয়ন নিয়ে ছিলো বালাগঞ্জ উপজেলার কার্যক্রম। ২০১৪ সালে বালাগঞ্জ উপজেলা থেকে ৮ টি ইউনিয়ন নিয়ে ঘোষনা করা হয় ওসমানীনগর উপজেলা। বর্তমান ৬ টি ইউনিয়ন নিয়ে বালাগঞ্জ উপজেলা।

 

এর আগে সিলেট -২ আসনের অন্তরভূক্ত ছিলো উপজেলাটি। গেল সংসদ নির্বাচনে এ উপজেলা অন্তরভূক্ত হয় সিলেট-৩ আসনের সাথে। বালাগঞ্জ উপজেলা সিলেট জেলার সাথে অন্তরভূক্ত। আর মৌলভীবাজার জেলার সিমান্তবর্তী।

 

এদিকে, মৌলভীবাজার জেলার রাজনগর উপজেলার আর সিলেট জেলার বালাগঞ্জ উপজেলার মিলনস্থল কুশিয়ারা নদী। দুই উপজেলার সাধারণ মানুুষের যোগাযোগের মাধ্যম নৌকা। নদীর তীরবর্তী এলাকার মানুষরা বর্ষা মৌসুমে ঝুঁকি নিয়ে নদী পার হতে হয়। নদীর তীরবর্তী এলাকার ছাত্র-ছাত্রীরা বালাগঞ্জ স্কুল ও কলেজে অধ্যয়নের জন্য প্রতিদিন বালাগঞ্জ আসতে হয়। তাই বালাগঞ্জ এবং রাজনেগরের মানুষের যোগযোগ ব্যবস্থা সহজ করতে কুশিয়ারা নদীতে একটি ব্রীজের দাবী ছিলো দির্ঘ দিনের।

 

কুশিয়ারা নদীর উপর ব্রিজ নির্মাণ হলে বালাগঞ্জ ও রাজনগর উপজেলার মানুষের আর্থসামাজিক অবস্থার ব্যাপক পরিবর্তন হবে এবং নদীর তীরবর্তী এলাকার ১০/১৫লক্ষ মানুষের যাতায়াত এবং পরিবহন ব্যবস্তা সহজতর হবে।

 

বৃহস্পতিবার ৩০ জানুয়ারি জাতীয় সংসদে সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী বালাগঞ্জ উপজেলা কুশিয়ারা নদীর উপর ব্রিজ নির্মাণ হউক এই সিদ্ধান্ত প্রস্তাবের উপর তার বক্তব্যে তুলে ধরেন।

 

তিনি বলেন, ২০০৯ সালে নবম জাতীয় সংসদে কুশিয়ারা নদীর উপর ব্রিজ নির্মাণের জন্য ডিও লেটারের প্রেক্ষিতে স্থানীয় প্রকৌশল বিভাগ ব্রিজ নির্মাণের জন্য টপোগ্রাফিক্যাল সার্ভে মাটি পরীক্ষা ও ডিজাইন করেছিল। এরপর ব্রিজটি এখনও বাস্তবায়িত হয়নি। ব্রিজটি এখন সড়ক ও জনপথ বিভাগের আওতায় যাওয়ায় মাননীয় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের কাছে ব্রিজ নির্মাণের জন্য দাবি জানান তিনি।

 

পরে সড়ক, পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি কুশিয়ারা নদীর উপর সেতু নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দেন।

 

 

 

 

এলবিএন/র-০৩/৩১/এফ/

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

আর্কাইভ

May 2024
M T W T F S S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031