উদ্বোধন হলো এসএমই আঞ্চলিক  পণ্য মেলা

প্রকাশিত: ৬:৩১ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২০

উদ্বোধন হলো এসএমই আঞ্চলিক  পণ্য মেলা

 

 

 

 প্রতিনিধি/নারায়নগঞ্জঃঃ

 

আসাদুর রহমানঃ উদ্বোধন হল সাতদিনব্যাপী ‘এসএমই আঞ্চলিক পণ্য মেলা’। শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সকালে ওসমানী পৌর স্টেডিয়াম আঞ্চলিক এসএমই পণ্য মেলার উদ্বোধন করেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব মো.আবদুল হালিম। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলার মানুষদের মধ্যে শিল্পপতি বা শিল্প উদ্যোক্তা হওয়ার মনোভাব রয়েছে।

 

সেটি আমাদের দেশের জন্য অত্যন্ত সম্পদ। আমরা মধ্যম আয়ের দেশে, উন্নত দেশে যেতে চাচ্ছি। মধ্যম আয়ের দেশ আর উন্নত দেশ মানেই হচ্ছে শিল্পউন্নত দেশ। আর উন্নত দেশ হওয়ার জন্যশিল্প উন্নত দেশ হওয়ার জন্য প্রয়োজন উদ্যোক্তা হওয়া। শিল্প প্রতিষ্ঠানের জন্য ঝুঁকি নেয়া। এই (নারায়ণগঞ্জ) জেলা অত্যন্ত গৌরবের ইতিহাস রয়েছে। নারায়ণগঞ্জের অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা বাংলাদেশের অন্যত্র ছড়িয়ে দিতে পারেন। নারায়ণগঞ্জসহ বেশ কিছু জেলা শিল্পের দিকে যাচ্ছে। আমাদের প্রশাসনের দিক দিয়ে সেই ধরণের পরিবর্তন আশা করি। তারা তাদের কার্যক্রমে শিল্প অর্থনীতি গড়ার ভূমিকা রাখবে।

 

মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন বলেন, প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে বারবার বলেন চাকরি দিবো নাকি নিবো, সেটি ভরসা বলতে গেলে বিসিকের কথাটিই বলেন। আমি আরো এক ধাপ এগিয়ে বলি বিসিক সারা বাংলাদেশের এসডিজি বাস্তবায়নে সবচেয়ে সফল জায়গা নিবে। বিসিক শুধু শিল্প উদ্যোক্তা তৈরি করে থামছে না। ফতুল্লা বিসিক, কাঁচপুর বিসিকে সারা বিশ্বের উৎপাদিত পণ্য এখান থেকে তৈরি করছে। আমরা সমন্বয় করে দিতে চাই। জাতির জনক যে স্বপ্ন দেখেছিলেন সুখী সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ার।  আজকে আমরা যদি মাঝারি, ক্ষুদ্র শিল্প উদ্যোক্তা তৈরি করে দিতে পারি, তাহলেই সোনার বাংলার রূপ পাবে।  শুধু বুকে আর মুখে জাতির জনক অথবা বঙ্গবন্ধুকে সালাম দিলেই নয়। আমাদের কর্মকান্ডে যদি তাঁর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে পারি, সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা তৈরি করতে পারি তবেই সেই টুঙ্গিপাড়ার খোকা বাবু কবরে শান্তি পাবে, এদেশের বীর মুক্তিযোদ্ধারা শান্তি পাবে।

 

নারায়ণগঞ্জের শিল্প যাতে আরো এগিয়ে যেতে পারে সেই ব্যাপারে উদ্যেগ নেয়ার আহবান জানিয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, বিসিক শিল্পের যারা মালিক তারা কষ্টে আছে। চেয়ারম্যানরাই তাদের ট্রেড লাইসেন্স দেয় না। অমুক-তমুক দেয়না। আমরা চাই এগুলো বিসিকের মাধ্যমে করে দিবে। এই মেলায় প্রতিদিন একটি স্কুলের শিক্ষার্থীরা এসে ঘুরে যাবে, এখান থেকে গিয়ে তারা এই মেলার উপর রচনা লিখবে। আমি সবাইকে হয়ত ডিসি এসপি বানাতে পারবো না, কিন্তু এটা দেখে তারা যেন উদ্যোক্তা তৈরী হতে পারে আমরা তা চাই।

 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বিসিক (অতিরিক্ত সচিব) চেয়ারম্যান এনডিসি মোশতাক হোসেন, ফতুল্লা বিসিক মালিক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম, সদর ইউএনও নাহিদা বারিক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুভাস সাহা,  নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির পরিচালক মোরশেদ সারোয়ার সোহেল, এসএমই পণ্য মেলার ব্যবস্থাপনা পরিচালক শফিকুল ইসলাম, পাবলিক প্রসিকিউটর ওয়াজেদ আলী প্রমুখ। নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন, বিসিক, চেম্বার, নাসিব ব্যবসায়িক প্রতিনিধি সকল স্টোক হোল্ডারদের সম্পৃক্ত করে তাদের সহযোগীতায় এসএমই ফাউন্ডেশন নারায়ণগঞ্জ জেলায় ৭ দিন আঞ্চলিক পণ্য মেলার আয়োজন করা হয়। মেলায় ৫০ টি স্টল নির্মাণ করা হচ্ছে। ৫০টি স্টলে মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারী শিল্প উদ্যোক্তাগণকে বরাদ্দ দিয়ে তাদের উৎপাদিত পণ্যে প্রদর্শন, বিপন ও পারস্পরিক মতবিনিময় করার সুযোগ পাবে।

 

এসএমই প্রতিষ্ঠান সমূহকে মেলায় অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার প্রদান করা হয়েছে । এছাড়াও এসএমই ফাউন্ডেশনের চিহ্নিত ক্লাস্টার সমূহ, তৃতীয় লিঙ্গ, অটিজম এবং উপজাতি উদ্যোক্তাদেরকে অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে। মেলায় সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা, পয়নিস্কাশনে ব্যবস্থা, ভিজিটর বুক, লাইটিং ব্যবস্থা, বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, কীÑনোট পেপার উপস্থাপন শ্রেষ্ঠ স্টল মালিকদেকে  পুরস্কারের ব্যবস্থাসহ  অনারম্ভর উদ্বোধনী ও সমাপনী অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা রয়েছে। এসএমই মেলা চলবে ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

 

Spread the love

আর্কাইভ

July 2024
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031