সবকিছু নির্ভর করছে পশ্চিমাদের ওপর, কামানের গোলা প্রায় শেষ: ইউক্রেন

প্রকাশিত: ৩:০৬ অপরাহ্ণ, জুন ১১, ২০২২

সবকিছু নির্ভর করছে পশ্চিমাদের ওপর, কামানের গোলা প্রায় শেষ: ইউক্রেন
Spread the love

৩২ Views

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃঃ

ইউক্রেনের সামরিক গোয়েন্দা সংস্থার উপ-প্রধান বলেছেন, রণক্ষেত্রে রাশিয়ার বিরুদ্ধে হেরে যাচ্ছে ইউক্রেন এবং রাশিয়াকে ঠেকিয়ে রাখতে তাদের পশ্চিমা অস্ত্রের ওপর পুরোপুরি নির্ভর করতে হচ্ছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেছেন। শুক্রবার সাক্ষাৎকারটি প্রকাশিত হয়েছে। ইউক্রেনের সামরিক গোয়েন্দা সংস্থার উপ-প্রধান ভাদিম স্কিবিতস্কি বলেন, এটি এখন একটি কামান যুদ্ধে পরিণত হয়েছে। এখন আমরা যে রণক্ষেত্রে রয়েছি তা ভবিষ্যৎ নির্ধারণ করবে এবং কামানের নিরিখে আমরা হেরে যাচ্ছি।

 

 

স্কিবিতস্কি বলেন, এখন সবকিছু নির্ভর করছে পশ্চিমারা আমাদের কী দিচ্ছে। ইউক্রেনের একটি কামানের বিপরীতের রাশিয়ার রয়েছে ১০ থেকে ১৫টি। রাশিয়া যা আছে তার মাত্র ১০ শতাংশ আমাদের দিয়েছে পশ্চিমা অংশীদাররা। তিনি বলেছেন, প্রতিদিন ৫ থেকে ৬ হাজার কামানের গোলা ব্যবহার করছে ইউক্রেন। আমরা আমাদের কামানের গোলা প্রায় সব শেষ করে ফেলেছি। এখন আমরা ন্যাটো মানের ১৫৫-ক্যালিবার শেল ব্যবহার করছি। ইউক্রেনীয় গোয়েন্দা কর্মকর্তা বলেন, ইউরোপ আমাদের নিম্ন-ক্যালিবারের শেল দিচ্ছিল। কিন্তু তাদের সরবরাহও ফুরিয়ে গেছে।

 

দিন দিন পরিমাণ কমছে। গত সপ্তাহে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছিলেন, প্রতিদিন ৬০ থেকে ১০০জন ইউক্রেনীয় সেনা নিহত হচ্ছে এবং আরও ৫০০ জনের মতো আহত হচ্ছে। ইউক্রেন নিজেদের সেনাবাহিনীর হতাহতের সংখ্যা এখন পর্যন্ত গোপন রেখেছে। রণক্ষেত্রে মোতায়েন হওয়ার ইউক্রেনীয় সেনারাও দ্য গার্ডিয়ানের একই চিত্রের কথা তুলে ধরেছেন। স্কিবিতস্কি পশ্চিমাদের কাছ থেকে দূরপাল্লার রকেট ব্যবস্থা ইউক্রেনকে দেওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। যাতে করে দূরথেকে রুশ কামান ধ্বংস করা যায়। সম্প্রতি ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের এক উপদেষ্টা ওলেক্সি আরেস্টোভিচ বলেছিলে, ইউক্রেনের প্রয়োজন ৬০টি মাল্টিপল রকেট লঞ্চার।

 

 

যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিশ্রুতির তুলনায় এই সংখ্যা অনেক বেশি। ১৫ জুন ব্রাসেলসে ন্যাটোর কন্টাক্ট গ্রুপের কাছে অস্ত্র ও প্রতিরক্ষা সামগ্রীর একটি তালিকা দিতে পারে। যা এই মুহূর্তে তাদের প্রয়োজন। স্কিবিতস্কি মনে করেন, এই সংঘাত অদূর ভবিষ্যতেও কামান যুদ্ধ হিসেবে বজায় থাকবে। রুশ রকেট হামলার গতিও একই থাকবে। ২৪ ফেব্রুয়ারি আক্রমণ শুরুর পর প্রথম দিকে ইউক্রেনে ক্রমাগত রকেট হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। কিন্তু গত দুই মাসে এমন হামলার সংখ্যা কমে এসেছে।

 

 

ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনীর প্রধানের মতে, রাশিয়া এখন দিনে ১০ থেকে ১৪টি রকেট নিক্ষেপ করছে। স্কিবিতস্কি বলেন, আমরা লক্ষ্য করে রাশিয়া রকেট হামলা কমিয়ে দিয়েছে। এটি প্রমাণ করে রাশিয়ার রকেট কমে এসেছে। নিষেধাজ্ঞার কারণে দ্রুত এগুলো উৎপাদন করতে পারছে না মস্কো। এই যুদ্ধে রুশরা তাদের রকেট মজুতের ৬০ শতাংশ ব্যবহার করে ফেলেছে।


Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Follow us

আর্কাইভ

June 2022
M T W T F S S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
27282930