উপবৃত্তির টাকা নিয়ে বিপাকে বিয়ানীবাজারের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা

প্রকাশিত: ২:১০ অপরাহ্ণ, জুন ১৩, ২০২০

উপবৃত্তির টাকা নিয়ে বিপাকে বিয়ানীবাজারের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা

 

প্রতিনিধি/বিয়ানীবাজারঃঃ

বিয়ানীবাজারে উপবৃত্তির টাকা নিয়ে বিপাকে পরেছেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কয়েক হাজার শিক্ষার্থী এবং তাদের অভিভাবক। শিওরক্যাশের এজেন্ট শাখায় ঘুরতে ঘুরতে তারা টাকা তুলতে পারেননি। এতে শিক্ষার্থী, অভিভাবকদের ভোগান্তির পাশাপাশি সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে।

 

জানা গেছে, মাস খানেক আগে থেকেই রুপালী ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং সেবা শিওরক্যাশের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা অভিভাবকদের মোবাইল নম্বরে আসা শুরু হয়। স্থানীয় এজেন্ট পয়েন্টেগুলোতে ঘুরতে ঘুরতে ও সেই টাকা না পাওয়ায় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা হতাশ। এজেন্টদের অভিযোগ, শিওরক্যাশের ডিলার মের্সাস কালারস্ এন্টারপ্রাইজ এর সার্ভিস মান অত্যন্ত নাজুক।

 

ডিলারকে টাকা টান্সাফারের মাস পেরিয়ে গেলেও নগদ টাকা দিচ্ছে না তারা । তাই বাধ্য হয়েই গ্রাহকদের ফিরেয়ে দিতে হচ্ছে।এতে এজেন্টরা যেমন হয়রানি হচ্ছেন একইভাবে ভোগান্তিতে পড়েছেন শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা।

 

শিওর ক্যাশের এজেন্ট জাহাঙ্গীর আলম অভিযোগ করে বলেন, পনের হাজার টাকা ডিলারের কাছে আমাদের পাওনা। এ টাকা এক মাস থেকে পাচ্ছি না। এ অবস্থায় গ্রাহক টাকা তুলতে আসলেও আমরা ফিরিয়ে দিচ্ছি। আগের টাকা পাবো কি না এর কোন নিশ্চিয়তা পাচ্ছি না।

 

শিওর ক্যাশের ডিলার এজেন্টদের সাথে অসদাচারণ করছেন অভিযোগ করে থানাবাজারের এজেন্ট আলতাফ হোসেন বলেন, আমাদের টাকা দিতে বার বার সময়ক্ষেপন করছেন। কথনো অসুস্থতা, কখনো ব্যাংক টাকা দিচ্ছে না বলে টালবাহনা করছেন ডিলার। এ অবস্থায় আমরা অসহায় হয়ে আছি। কার কাছে গেলে আমাদের টাকা পাব এ নিয়ে আমরা অন্ধকারে আছি।

 

শিউরক্যাশ স্থানীয় ডিলারের ব্যবস্থাপক শিপু আহমদ বলেন, রূপালী ব্যাংক থেকে সহযোগিতা ও টাকা না পাওয়ার কারণে তারা এজেন্টদের টাকা দিতে পারছেন না। তিনি এ সমস্যা সাময়িক উল্লেখ করে বলেন, আমরা চেষ্টা করছি বর্তমান সমস্যা কাটিয়ে উঠে এজেন্টদের টাকা পরিশোধ করার। এ নিয়ে রূপালী ব্যাংকের দায়িত্বশীলদের সাথে আলাপ হয়েছে। ব্যাংক থেকে টাকা পেলেই এজেন্টদের টাকা পরিশোধ করা হবে।

Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

আর্কাইভ

July 2024
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031