শিক্ষক-শিক্ষিকার অনৈতিক কর্মকান্ড:এলাকায় তোলপাড়

প্রকাশিত: ১:২৮ অপরাহ্ণ, মার্চ ২১, ২০২০

শিক্ষক-শিক্ষিকার অনৈতিক কর্মকান্ড:এলাকায় তোলপাড়
Spread the love

১২ Views

জেলা প্রতিনিধিঃঃ

অনৈতিক সম্পর্কে লিপ্ত ছিলেন কুষ্টিয়ার খোকসা জানিপুর সরকারি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মুনিরা সুলতানা ও স্কুলটির কারিগরি শাখার ট্রেড ইন্সট্রাক্টর বিদ্যুৎ কুমার দাস। তাদের অসামাজিক কর্মকাণ্ডের ছবি ও ভিডিও নিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছিল। অনৈতিক সম্পর্কের জড়িত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ট্রেড ইন্সট্রাক্টর বিদ্যুৎ কুমার দাসের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান শিক্ষক ও সভাপতিকে বলেছে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর। একই সাথে তাকে শোকজ করা হয়েছে। কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র দৈনিক শিক্ষাডটকমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

 

জানা গেছে, কুষ্টিয়ার খোকসা জানিপুর সরকারি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিষয়ের সহকারী শিক্ষক মুনিরা সুলতানা ও স্কুলটির কারিগরি শাখার জেনারেল মেকানিক্স বিষয়ের ট্রেড ইন্সট্রাক্টর বিদ্যুৎ কুমার দাস অনৈতিক সম্পর্কে লিপ্ত ছিলেন। গত ফেব্রুয়ারি মাসের শুরুতে তাদের মধ্যকার অসামাজিক কার্যকালাপের কিছু ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। যা নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়। অসামাজিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত দুই শিক্ষকের অপসারণের দাবিতে আন্দোলনও করেছে স্কুলটির শিক্ষার্থীরা ও এলাকাবাসী।

 

স্থানীয় কয়েকটি সূত্র দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানায়, শিক্ষক শিক্ষিকার অসামাজিক কর্মকাণ্ডের কিছু ছবি ও ভিডিও ভাইরাল হলে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ তুলেছিলেন তারা। স্কুলটির কারিগরি শাখার ট্রেড ইন্সট্রাক্টর বিদ্যুৎ কুমার দাসের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ তুলেছিলেন সমাজবিজ্ঞান বিষয়ের সহকারী শিক্ষক মুনিরা সুলতানা।আর স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে ট্রেড ইন্সট্রাক্টর বিদ্যুৎ কুমার দাস অভিযোগ করে বলেছিলেন, মুনিরার সাথে অনৈতিক সম্পর্ক ছিলো, যার ফলে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ। সংসারে শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে মনিরার সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করেন। কিন্তু মুনিরা সেটা মেনে নিতে পারেনি। পুনরায় সম্পর্ক স্থাপন করতে চায় রাজী না হওয়ায় মুনিরা যৌন হয়রানির অভিযোগ দিয়েছে।

 

এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হলে বিষয়টি তদন্ত করেন খোকসার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। তদন্ত প্রতিবেদন কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসকের কাছে জমা দেয়া হয়।কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানায়, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি তদন্ত প্রতিবেদন কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরে পাঠান কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক। তদন্ত প্রতিবেদনে স্কুলটির ট্রেড ইন্সট্রাক্টর বিদ্যুৎ কুমার দাসের সাথে সমাজবিজ্ঞান বিষয়ের সহকারী শিক্ষক মুনিরা সুলতানার অনৈতিক সম্পর্কের বিষয়টি প্রমাণিত হয়েছে। তাই, সমাজিক কর্মকাণ্ডে জড়িত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরকে অনুরোধ করেছেন কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক।

 

অধিদপ্তর সূত্র দৈনিক শিক্ষাডটকমকে আরও জানায়, জানিপুর সরকারি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি সরকারি হলেও এর কারিগরি শাখা বেসরকারি। কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও নীতিমালায় নৈতিক স্খলন জনিত কারণে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলা আছে। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ট্রেড ইন্সট্রাক্টর বিদ্যুৎ কুমার দাসের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। গত ১৫ মার্চ অধিদপ্তর থেকে চিঠি পাঠিয়ে শিক্ষক বিদ্যুৎ কুমার দাসের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে স্কুলটির প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতিকে।

 

অপরদিকে শিক্ষক বিদ্যুৎ কুমার দাসকে শোকজ করেছে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এমপিও নীতিমালা অনুযায়ী শিক্ষক বিদ্যুতের বিরুদ্ধে কেন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে না তা জানতে চাওয়া হয়েছে শোকজ নোটিশে। সাত কর্মদিবসের মধ্যে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরে শোকজের ব্যখ্যা পাঠাতে বলা হয়েছে বিদ্যুৎকে। শোকজের জবাব পেলে সে অনুযায়ী অনৈতিক-অসামাজিক কর্মকাণ্ডে জড়িত শিক্ষকের শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে।


Spread the love

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Follow us

আর্কাইভ

May 2022
M T W T F S S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031