যুবক এখন মহা বিপদে!

প্রকাশিত: ১:২৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৬, ২০২০

যুবক এখন মহা বিপদে!
Spread the love

Views

লন্ডনবাংলা ডেস্কঃ

 

 

যৌনপল্লিতে ‘ফুর্তি’ করতে মহা বিপদে পড়েছেন এক যুবক। ওই যৌনপল্লীর এক কর্মী প্রথমে ওই যুবকের কাছ থেকে ২ লক্ষ টাকা আদায় পর যুবকের বাড়িতে গিয়ে আরও ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা চেয়ে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। সাত দিনের মধ্যে ওই টাকা না দিলে মিথ্যে মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকিসহ যুবককে খুনের হুমকিও দিচ্ছে যৌনকর্মীরা। শেষ পর্যন্ত আদালতের নির্দেশে পুলিশ কলকাতার চিৎপুর থানায় চাঁদাবাজির অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, ভারতের উত্তর কলকাতার পাইকপাড়া এলাকার বাসিন্দা ওই যুবক দুই বছর আগে সোনাগাছির যৌনপল্লিতে যান। সেখানেই তার সঙ্গে পরিচয় হয় এক যৌনকর্মীর। যুবক ওই যৌনকর্মীর কাছে একাধিকবার যেতে শুরু করেন।

ওই যুবক পুলিশকে জানান, তিনি ‘মানসিকভাবে’ যৌনকর্মীর কাছাকাছি পৌঁছে যান। তৈরি হয় ভালোবাসা। সেই সুবিধা নিয়ে বিভিন্ন কারণে ওই যুবতী তার কাছ থেকে টাকা নিতে থাকে। যুবকও তাকে টাকা দিতেন। যুবতীর আসল বাড়ি উত্তর ২৪ পরগনার হাড়োয়ায়। কিন্তু ঘর ভাড়া নিয়ে দমদমে থাকত সে। ইতিমধ্যে ওই যৌনকর্মী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। সেই সূত্রেই বিভিন্নভাবে যুবককে চাপ দিতে শুরু করে যুবতী। এমনকি, এটাও বলা হয় যে, সন্তানটি তারই। যৌনকর্মী ভ্রূণ নষ্ট না করে শিশুটির জন্ম দিতে চায়। আর সেই কারণেই টাকা চাইতে শুরু করে।

 যুবকের দাবি, প্রথমে মানবিকতার খাতিরেই তিনি রূপা নামে ওই যুবতীকে ২ লক্ষ টাকা দেন। ওই টাকা পেয়েই ক্ষান্ত হয়নি সে আরও টাকা চাইতে শুরু করে। প্রথমে যুবক বিষয়টিকে পাত্তা দেননি। কিন্তু কয়েকদিন আগেই রূপা তার এক সঙ্গীকে নিয়ে যুবকের বাড়িতে গিয়ে হাজির হয়। দু’জন মিলে যুবককে হুমকি দিতে শুরু করে। ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা চায় তারা। যুবক ওই টাকা দিতে অস্বীকার করেন। এরপরই শুরু হয় খুন ও মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকি। ৭ দিনের মধ্যে ওই টাকা দিতে হবে বলে তারা হুমকি দিয়ে যায়। তবে যুবকের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ ।

 

এলবিএন/২৬-জ-/এফ/১১-০১


Spread the love

Follow us

আর্কাইভ

January 2022
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
31