ফুসফুসের ক্ষতি প্রতিরোধে রেমডিসিভিরে ‘কার্যকর প্রমাণ’ মিলেছে

প্রকাশিত: ১:০৩ অপরাহ্ণ, জুন ১০, ২০২০

লন্ডন বাংলা ডেস্কঃঃ

মার্কিন ফার্মাসিউটিক্যালস গিলিয়াডের রেমডিসিভির ইনজেকশন করোনাভাইরাস আক্রান্তদের ফুসফুস রক্ষা করতে পারে বলে ‘কার্যকর প্রমাণ’ পাওয়ার কথা জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। করোনায় আক্রান্ত বানরের ওপর গবেষণা করে এই প্রমাণ পাওয়া গেছে।

 

গতকাল মঙ্গলবার ন্যাচার জার্নালে প্রকাশিত প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১২টি বানরকে নতুন ভাইরাসে সংক্রমিত করে রেমডিসিভির ইনজেকশন দেওয়া হয়। এদের মধ্যে অর্ধেককে সংক্রমণের শুরুর দিকে এই ওষুধ প্রয়োগ করে চিকিৎসা শুরু করা হয়।

 

তবে রেমডিসিভির দেওয়ার পর কোনো বানরের শ্বাসযন্ত্রের রোগের লক্ষণ দেখা যায়নি। একই সঙ্গে তাদের ফুসফুসের ক্ষতি কমিয়েছে ওষুধটি। এ ছাড়া রেমডিসিভিরে চিকিৎসা দেওয়া প্রাণীদের ফুসফুসে ভাইরাসও কম পাওয়া গেছে।গবেষকদের পরামর্শ, করোনা পজিটিভ হওয়ার পর নিউমোনিয়া প্রতিরোধে রোগীদের যত দ্রুত সম্ভব রেমডিসিভির দেওয়া উচিত।

 

রেমডিসিভির প্রথম ওষুধ যেটি করোনা প্রতিরোধে মানুষের শরীরে কার্যকর বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে। বাংলাদেশসহ পৃথিবীর অধিকাংশ দেশ এই ওষুধটি ব্যবহার করছে। এতদিন বলা হচ্ছিল, রেমডিসিভির ব্যবহারে সুস্থতার সময় কমে আসে। অর্থাৎ অন্য ওষুধ ব্যবহারে কোভিড-১৯ রোগী যে সময়ে সুস্থ হন, তার থেকে এই ওষুধে কম সময় লাগে।

 

গত এপ্রিলে মার্কিন বিজ্ঞানীরা প্রথম এ ব্যাপারে তথ্য দিয়েছিলেন। কিন্তু ওই সময় কোনো মেডিকেল জার্নাল থেকে একাডেমিক বৈধতা দেওয়া হয়নি। এই প্রথম এর একাডেমিক বৈধতা দেওয়া হয়েছে।

Spread the love