যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টে রুনা লায়লার‘লিজেন্ডস ফরেভার’

প্রকাশিত: ১:৫০ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৬, ২০২০

যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টে রুনা লায়লার‘লিজেন্ডস ফরেভার’
Spread the love

২৮ Views

বিনোদন ডেস্কঃঃ

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন গায়িকা রুনা লায়লার অর্জনের মুকুটে যুক্ত হলো আরও একটি পালক। উপমহাদেশের বিখ্যাত শিল্পীদের নিয়ে তার তৈরি করা অ্যালবাম ‘লিজেন্ডস ফরেভার’-এর প্রকাশনা আয়োজন হয়েছে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট দ্য হাউজ অব লর্ডসে।গত ১১ মার্চ এই অ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। এতে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রখ্যাত ভারতীয় গজল শিল্পী অনুপ জালোঠা, যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাঈদা মুনা তাসনীম, হাউজ অব কমনসের এমপি সিমা মালহোত্রা।

 

রুনা লায়লার সুর করা ‘লিজেন্ডস ফরেভার’ অ্যালবামে গান গেয়েছেন আশা ভোঁসলে, রাহাত ফতেহ আলি খান, হরিহরণ, আদনান সামি ও রুনা লায়লা নিজে। গানের কথা লিখেছেন মনিরুজ্জামান মনির ও কবির বকুল।নিজের সুরে প্রথম অ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট ভবনে হওয়ায় দিনটিকে স্মরণীয় দিন মনে করছেন রুনা। তিনি জানান, প্রথমবার কোনো গানের অ্যালবামের প্রকাশনা অনুষ্ঠান হয়েছে দ্য হাউজ অব লর্ডসে।নন্দিত এ সংগীত শিল্পী বলেন, ‘অতিথি এবং এই অ্যালবামের পৃষ্ঠপোষক সবাইকে ধন্যবাদ।

 

এটি সত্যি আমার জীবনের স্মরণীয় একটি দিন, অসাধারণ মুহূর্তও।’এদিকে ‘লিজেন্ডস ফরেভার’ অ্যালবাম নিয়ে বিবিসি তার একটা দীর্ঘ সাক্ষাৎকার নিয়েছে। সাক্ষাৎকারে তিনি অ্যালবাম তৈরির পেছনের গল্পটা বলেছেন।রুনা লায়লা বলেন, ‘আমাকে সবচেয়ে বেশি অনুপ্রাণিত করেছেন আলমগীর সাহেব। তার প্রযোজনা ও পরিচালনায় “একটি সিনেমার গল্প” চলচ্চিত্রের জন্যই আমার প্রথম সুর করা।এরপর আমার সুর ও সংগীতে এ প্রজন্মের কয়েকজন শিল্পী গান গেয়েছে। দেশের শিল্পীদের গাওয়া গানগুলো নিয়ে আলোচনা করতে গিয়ে সাংবাদিক রাফি হোসেন একদিন কথায় কথায় বলেন, “আপনার সুরে তো আন্তর্জাতিক অঙ্গনের শিল্পীরাও গাইতে পারেন। তাহলে গানগুলো আরও বেশি আলোচিত হবে।

 

তখনই বিষয়টি আমাকে বেশ ভাবায়। মূলত এরপর থেকেই অ্যালবামের কাজের শুরু।’গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসের মাঝামাঝি সময়ে লন্ডনে এই পাঁচটি গান তৈরির কাজ শুরু হয়। সংগীতায়োজনে ছিলেন রাজা কাশ্যপ।এরপর ১৩ ডিসেম্বর সিটি ব্যাংকের এমএক্স কার্ডের প্রযোজনায় প্রকাশিত হয় ‘রুনা লায়লা ফিচারিং লিজেন্ডস ফরেভার’ শিরোনামে পাঁচটি গানের ভিডিও। এবার যুক্তরাজ্যে হলো এই প্রকাশনা উৎসব।


Spread the love